What Is Data-Driven Marketing? – Definition & All You Need To Know About Data-Driven Marketing
Digital Marketing

What Is Data-Driven Marketing? – Definition & All You Need To Know About Data-Driven Marketing

Shayaike Salvy
Shayaike Salvy

Table of Contents

What Is Data-Driven Marketing? – Definition & All You Need To Know About Data-Driven Marketing by Shayaike Salvy

কিছুদিন যাবত ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং নিয়ে অনেক কথা শুনছি এবং ভাবলাম দেখি যেহেতু এত নাম শুনছি সেহেতু বাংলাতে হয়ত কিছু ভাল আর্টিকেল আছে কিন্তু আমি খুজতে গিয়ে একটু হতাশ হলাম (কিছুই নেই বললে ভুল হবে, আছে!, ভাল কিছুই আছে-কিন্তু অনেক কম) কারণ আর্টিকেল থকলেও বেশি নেই, কম্পেয়ার যে করবো তার কোন অপশন নেই। তাই ভাবলাম আমার এই ক্ষুদ্র জ্ঞানে যতটুকু সম্ভব সেই পর্যন্ত শেয়ার করি। কিছু এডভান্স টপিক দেখানোর আগে আমি ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো কারণ আমি মনে করি আমরা যদি বিস্তারিত না জানি তাহলে, এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং সম্পর্কে এত ভাল কিছু শিখতেও বুঝতে পারবো না। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করি। আর এই আর্টিকেলটি পড়ার পর জানাতে ভুলবেন না যে আপনার কোন কাজে আসলো কি না এই আর্টিকেলটি?

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং কি ( What is Data Driven Marketing)? কেনই বা এই মার্কেটিং পদ্ধতি এত বেশি জনপ্রিয় ও সফল? ধরুন আপনি একটি অনলাইন শপ দিয়েছেন যেই শপের পণ্য ডেলিভারি হবে শুধু ঢাকার মধ্যে!

এখন খুলনাতে বিজ্ঞাপন দিয়ে তো আপনার কোন লাভ নেই। আবার মনে করি আপনার সেই অনলাইন শপের মাধ্যমে নতুন একটি বিশেষ ধরণের আঁচার আপনি বিক্রয় করতে চাচ্ছেন। এই আঁচারটি বিশেষ ভাবে আমের আঁচার যারা পছন্দ করে তাদের জন্যই তৈরি করা হয়েছে।

এখন আপনি ঢাকায় বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন ঠিকই, কিন্তু সেভাবে আপনার পণ্যটি কেউ কিনছে না। দেখা গেল কোন একটি মাধ্যমে আপনার বিজ্ঞাপন এক হাজার জনের কাছে পৌঁছে গেছে, তাদের মধ্যে কেবল মাত্র পঞ্চাশ জন আমের আঁচার পছন্দ করে। এই এক হাজার জনের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছানর পর আপনার পণ্য বিক্রয় হল মাত্র দশটি।

কিন্তু আপনি যদি কোন ভাবে এক হাজার জন আমের আঁচার পছন্দ করে এমন মানুষের কাছে আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারেন, তাহলে তো অবশ্যই আপনার বিক্রয়ও অনেক বেশি হবে।

ঢাকায় আমের আঁচার পছন্দ করে কারা এই তথ্যের ভিত্তিতেই কিন্তু আপনাকে এই বিজ্ঞাপন দিতে হবে। আর এই ধরণের তথ্য এবং উপাত্তের ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন বা মার্কেটিং করাকেই বলা হয় ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং (Data Driven Marketing) ।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর মাধ্যমে ভোক্তাদের যাবতীয় তথ্য, উপাত্ত বা ডেটা বিশ্লেষণ করে আরো অনেক বেশি কার্যকরী ভাবে বিজ্ঞাপন পৌঁছে দেয়া হয়ে থাকে। এভাবে ডাটা ড্রিভেন মার্কেটিং যে সাধারণ বিজ্ঞাপনের তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর হবে সেটা তো বুঝাই যাচ্ছে। তবুও আসুন এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর কিছু উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেই…

কীভাবে এলো এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং?

আদতে সবকিছুর আধুনিকায়নের মাধ্যমেই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর ধারণা চলে আসে। গুগুল ও ফেসবুকের মত জায়ান্ট কোম্পানিগুলোর ফ্রি সেবা নিচ্ছেন এমন মানুষের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। আর মূলত এই পৃথিবীতে ফ্রি বলতে কিছু নেই—আপনি এই ফ্রি ব্যবহারের বদলে নিজের সব ডেটা তাদের হাতে তুলে দিচ্ছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনি কি ধরণের ছবি লাইক করছেন, কি ধরণের পণ্য বেশি কিনছেন, এমনকি কোন সময়ে আপনি কোন জিনিসটি ক্রয় করছেন তার সবই ডেটা আকারে এই জায়ান্ট কোম্পানিগুলোর কাছে রয়ে যায়।

এই জায়ান্ট কোম্পানিগুলোতে যখন কেউ বিজ্ঞাপন প্রদান করতে যায়, তখন সেই বিজ্ঞাপন যাতে অনেক বেশি কার্যকর হয়ে থাকে, সে জন্যই Facebook IQ , Google Trends এই  ধরণের সফটওয়্যারের মাধ্যমে নির্ণয় করা হয় যে বিজ্ঞাপনটি কোথায় প্লেস করলে এবং কীভাবে প্লেস করলে সেটা থেকে বেশি বিক্রয় আসার সম্ভাবনা বেশি।

আবার বর্তমানে এই ডেটার উপর ভিত্তি করে ‘Marketo’ এবং ‘Eloqua’ এর মত বড় বড় কোম্পানি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। যাদের কাজ হল এই সব ডেটা নিয়ে গবেষণা করা এবং এই সব ডেটা’র সর্বচ্চ ব্যবহারের জন্য সেই গবেষণার ভিত্তিতে ডেটা কালেকশনের জন্যও বিভিন্ন সফটওয়্যার, ট্র্যাকার তৈরি করা।

বর্তমানে আপনি ফেসবুকে অথবা গুগোলে যখন বিজ্ঞাপন দিতে যাবেন, তখন দেখতে পাবেন যে সবকিছুই অটোমেটিক হচ্ছে। এই বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের বিষয়গুলো সম্পূর্ণ অটোমেটিক সফটওয়্যার দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এবং ক্রিয়েটিভ মাইন্ড

ডেটা অনুযায়ী বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের ব্যবহার শুরু হওয়ার পূর্বে বিজ্ঞাপনগুলো সাধারণত সবার কথা বিবেচনা করেই তৈরি করা হত এবং সব ধরনের মাধ্যমেই প্রচার করা হত। কিন্তু বর্তমানে কি হচ্ছে? একটি উদাহরণ দিলে বিষয়টি ভালো ভাবে বুঝবেন।

What Is Data-Driven Marketing? – Definition & All You Need To Know About Data-Driven Marketing by Shayaike Salvy

মনে করি ঢাকায় বসবাসরত ইউজারদের মধ্যে অনলাইনে যারা খাবার অর্ডার করেন, তাদের দশ ভাগ বিকেলে চিকেন দিয়ে তৈরি খাবার অর্ডার করেন এবং দশ ভাগ বিফ দিয়ে তৈরি খাবার অর্ডার করেন।

এখন যে দশভাগ চিকেন দিয়ে তৈরি খাবার খেতে পছন্দ করেন, তাদেরকে কি বিফ দিয়ে তৈরি খাবারের বিজ্ঞাপন দিয়ে তেমন কোন বিক্রয় হবে? আবার যারা বিফ দিয়ে তৈরি খাবার খেতে পছন্দ করেন তারা কি চিকেন দিয়ে তৈরি খাবারের বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হবেন?

এখানে মনে রাখতে হবে তারা উভয়েই কিন্তু অনলাইনে অর্ডার করে খাবার খাচ্ছেন! এখন ক্রিয়েটিভ মাইন্ড এর বিচরণ এখানেই—আপনাকে দুটো আলাদা বিজ্ঞাপন তৈরি করতে হবে। প্রথম দশভাগের জন্য বিকালের নাস্তা হিসেবে চিকেন দিয়ে তৈরি পণ্যের বিজ্ঞাপন আর দ্বিতীয় দশ ভাগের জন্য বিফ দিয়ে তৈরি পণ্যের বিজ্ঞাপন।

এর পাশাপাশি এই বিজ্ঞাপনগুলো যদি ঠিক বিকেলের আগে যদি প্রদর্শন করা হয় তাহলে অনেক বেশি কার্যকর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আবার আপনি যদি ক্রিয়েটিভ ভাবে চিকেন এবং বিফ উভয় দিয়ে তৈরি খাবার একটি বিজ্ঞাপনের মধ্যে নিয়ে আসতে পারেন তাহলে আপনার বিজ্ঞাপন তৈরির খরচ কমাতে পারে। আর ঠিক এখানেই যে যত বেশি ক্রিয়েটিভ ভাবে কাজ করতে পারবে, তার সফলতাও ঠিক ততটা বেশি হবে।

কীভাবে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এ ডেটা ব্যবহৃত হয়ে থাকে

ধরুন আপনার একটি ব্লগ আছে যেখানে প্রতি মাসে তিন থেকে চার মিলিয়ন ভিজিটর আছে। এখন এই চার মিলিয়ন ভিজিটর যেহেতু আপনার ব্লগে আছে, তাই আপনি চাইলে সেই ভিজিটরদের ডেটা ব্যবহার করে তাদের বিভিন্ন ধরণের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারবেন। কিন্তু কীভাবে এই ডেটাগুলো আপনি ব্যবহার করতে পারবেন? একদম ব্যাসিক কিছু ধারণা দিচ্ছি, তাহলে বুঝতে পারবেন সহজে।

ধরুন আপনি চাচ্ছেন আপনি একটি শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবেন। কিন্তু সবাইকে গণহারে সেই বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করলে ফল তেমন একটা পাওয়া যাবে না। আবার ইউজাররা তাদের অনাকাঙ্ক্ষিত বিজ্ঞাপন দেখে বিরক্তও হয়ে যেতে পারে। এখন সেই ভিজিটরদের লোকেশন দেখুন, তারা কে কোন ধরণের এলাকায় বসবাস করে।

  • যারা দেখবেন একটু আর্দ্র এলাকায় বসবাস করে, মনে করবেন তাদের শ্যাম্পুর বেশি প্রয়োজন
  • যারা আপনার ব্লগে চুলের যত্ন নিয়ে আর্টিকেল বেশি পরে তাদেরকে আপনি এই শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

আবার আপনার কাছে নেটফ্লিক্সের মত অন্য কোন কোম্পানির বিজ্ঞাপন আসলো, তখন আপনি,

  • শুধুমাত্র তাদেরকেই টার্গেট করুন, যারা ব্লগের মুভি সেকশনে বেশি সময় পার করছে
  • নিত্য নতুন মুভি রিভিউ বা গসিপ নিয়ে অনেক বেশি আগ্রহী তাদের এই বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করলে বেশি কার্যকর হবে

এছাড়া আপনার ওয়েবসাইটে কে কি লিখে সার্চ দিচ্ছে, সেই অনুযায়ী আপনি নিজের ওয়েবসাইটের বিভিন্ন কন্টেন্ট সাজিয়ে তুলতে পারেন, যাতে ভিজিটররা আরো বেশি করে আপনার ওয়েবসাইটের প্রতি আগ্রহী হয়। ঠিক একই ভাবে, যারা আপনার ওয়েবসাইটের টেক ক্যাটাগরিতে বেশি সময় অতিবাহিত করছে, নিত্য নতুন গ্যাজেট অথবা মোবাইলের রিভিউ পড়ছে আগ্রহের সাথে। তাদেরকে আপনি নতুন মোবাইল বা গ্যাজেটের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারেন।

আদতে এভাবেই ডেটাগুলো ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যত বড় কোম্পানি এবং যত বেশি ভিজিটর তাদের এই ডেটা ম্যানেজমেন্ট আরো অনেক বেশি প্রয়োজন হয়। এবং এই ডেটা ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন তাদের জন্য আরো অনেক বেশি কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। বর্তমানে জায়ান্ট মার্কেটিং কোম্পানি যেমন গুগোল, ফেসবুক সহ অন্যান্য সবাই এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর উপর নির্ভরশীল।

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং (Data Driven Marketing) এর উপকারিতা

What Is Data-Driven Marketing? – Definition & All You Need To Know About Data-Driven Marketing by Shayaike Salvy

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর হাজারো উপকারিতা রয়েছে। তারমধ্যে অন্যতম হল এটি অনেক বেশি কার্যকর…

ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতি অনুসরণ করে মিডিয়া ক্রয় অর্থাৎ ট্রাফিক ক্রয় অনেক বেশি কার্যকর। কেননা কোন মানুষ, ঠিক কি পছন্দ করতে পারে, সেটা নিয়ে আমাদের খুব বেশি ভাবতে হয় না। বরং তথ্য ও উপাত্তগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমেই আমরা সেটা খুব ভালো ভাবেই বুঝতে পারি।

এছাড়া এই পদ্ধতি অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনি আপনার পণ্যটি একদম সঠিক কাস্টোমারের কাছে পৌঁছে দিতে পারবেন। ধরুন যার রাত জেগে বই পড়ার অভ্যাস নেই, তার কাছে যদি আপনি গিয়ে বলেন, রাতে বই পড়ার লাইট কিনবেন? সেটা আদৌ কোন কার্যকর ফল নিয়ে আসবে? তথ্য উপাত্তের মজাই এটা, আপনি জানবেন যে এই শহরে আমের আঁচার কয়জন পছন্দ করে আর সেই আমের আঁচার পছন্দ কারীদের কাছেই আপনি আমের আঁচারের বিজ্ঞাপন পৌঁছাতে পারবেন।

এমনকি আপনি চাইলে এই আমের আঁচার পছন্দ কারীদের কাছে নিজের পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন স্বরূপ সোশ্যাল মিডিয়া অথবা মোবাইল নাম্বারে মেসেজও করতে পারবেন। অথবা ধরুন যার বই পড়ার অভ্যাস রয়েছে তার কাছে যদি আপনি নতুন কোন আকর্ষণীয় বইয়ের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করেন তাহলে সেই পাঠকের বইটি ক্রয় করার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।

এই কার্যকরী বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেই আপনার পণ্য অনেক বেশি বিক্রয় হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এবং বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের ক্ষেত্রে আপনার ব্যবহৃত টাকা রিটার্ন (ROI) আসার সম্ভাবনাও একই সাথে অনেক বৃদ্ধি পায়।

ব্যবসায় এবং গ্রাহক উভয়ই মার্কেটিং এর ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতির গ্রহণ করে অনেক কিছু অর্জন করতে পারে। কৌশলগুলি যখন সফলভাবে প্রয়োগ করা হয়, তখন যে সকল সুবিধার রয়েছে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলঃ

1. Personalized Marketing

সঠিক সময়ে সঠিক দর্শকদের কাছে সঠিক বার্তা পৌঁছে দেয় সকল কোম্পানির জন্য গুরুত্বপূর্ন। ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং ব্র্যান্ডগুলিকে একটি কাস্টমাইজড কেম্পেইন তৈরি করতে দেয় যা সঠিক গ্রাহকের কাছে পৌছাতে সাহায্য করে। পার্সোনালাইজড মার্কেটিং ব্র্যান্ডকে স্বতন্ত্র স্তরে গ্রাহকদের সাথে যুক্ত করতে সাহায্য করে যা ঘুরেফিরে গ্রাহকের কাছে সেল এবং ROI বৃদ্ধি করে।

2. Clear-Cut Clarity

ডেটাবেইজ-এ প্রচুর পরিমাণে ডেটা আছে, যা মার্কেটাররা গ্রাহক এবং সম্ভাবনা সম্পর্কে সর্বাধিক নির্ভুল এবং কার্যক্ষম তথ্য নির্ধারণ করার জন্য চূড়ান্ত পদক্ষেপ নিতে পারে। ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতির সাথে, আপনি যে গ্রাহকের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন তা আলাদা করা এবং গ্রুপিং করা অনেক সহজ হয়ে যায়। এই ধরণের বিভাজন কৌশলটি আরও পারসোনালাইজড করতে সক্ষম এবং গ্রাহকবৃত্তিকে ড্রাইভ করতে পারে।

3. Multi-Channel Experience

মার্কেটাররা একাধিক নেটওয়ার্ক থেকে ডেটা সংগ্রহ করে প্রচার বৃদ্ধির জন্য এবং সত্যিকারের সর্বজনীন অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য কেবল ইমেলের বাইরে প্রচার করতে পারে। স্বয়ংক্রিয় মার্কেটিং এর মাধ্যমে চ্যানেলগুলিতে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং ব্যবহার করে একটি অ্যাডকে সঠিক সময়ে সঠিক স্থানে দেখানো সম্ভব।

4. Refined Customer Experience

অনেক জনপ্রিয় ব্র্যান্ড তাদের গ্রাহকের অভিজ্ঞতা বাড়ানোর জন্য ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং ব্যবহার করে। তারা প্রায়সই গ্রাহকের সন্তুষ্টি সমীক্ষা বাড়াতে এবং উন্নতির জন্য নির্দিষ্ট ক্ষেত্রগুলিকে চিহ্নিত করে।

5. Better Product Development

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং পণ্যের ব্যর্থতার হারকে যথেষ্ট হ্রাস করে। কোম্পানিগুলো তাদের টার্গেটেড শ্রোতাদের চাহিদাকে ভালভাবে বুঝতে পারে, যা সেই নির্দিষ্ট বাজারের জন্য আরও উপযুক্ত পণ্য তৈরির দিকে পরিচালিত করে।

The Challenges of Data-Driven Marketing

সর্বাধিক মূল্যবান ব্যবসায়ের কৌশলগুলির মতো, সফল ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এ চ্যালেঞ্জ রয়েছে। আসুন কয়েকটি সাধারণ সমস্যার দিকে একবার নজর দিন:

1. The Right Team

কাজের প্রকৃতি এবং প্রয়োজনীয় দক্ষতা বিবেচনায়, যারা দক্ষ্যতার সাথে ডেটা এনালাইসিস করতে পারে এমন দক্ষ মানুষ পাওয়া অনেক কঠিন। ডেটা ড্রিভেন (ডেটা সায়েন্টিস্ট হওয়া) সম্পর্কে আরও শেখাটা আপনাকে অথবা আপনার টীমকে উপকৃত করতে পারে।

2. Departmental Silos

ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর সাফল্য মূলত উচ্চ-মানের এবং ইন্টিগ্রেটেড ডেটা থাকার উপর নির্ভরশীল, যা অর্জন করা কোনও সহজ কাজ নয়। প্রায়সই, বিভিন্ন বিভাগগুলি বিভিন্ন ডেটা অর্জন করবে যা লক্ষ্যগুলির বিরোধী হতে পারে।

3. Commitment

আপনি যদি এটির প্রতি পুরোপুরি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ না হন তবে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর কৌশলটি অন্তর্ভুক্ত করা বোকামি বলে আমি মনে করি, তবুও কিছু কম্পানি এই ভুল করেই চলেছে। যদিও তারা একটি সংজ্ঞায়িত কৌশল জেনে কাজ করছে কিন্তু তবুও সঠিক টুলস ব্যবহার না করার কারণে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর সর্বত্তম ফলাফল পাচ্ছে না।

4. Integration

যদি কোনও কম্পানি ইন্টিগ্রেশন প্রক্রিয়াতেই ব্যর্থ হয়,তাহলে মার্কেটারকে ক্রেতার সামগ্রিক দৃষ্টিকোণের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করতে অনেক বেশি বেগ পেতে হবে।। উদাহরণস্বরূপ, খুচরা বিক্রেতারা এবং ই-কমার্স ওয়েবসাইটগুলি প্রায়শই সামাজিক মিডিয়া এবং মোবাইল ডিভাইসগুলি থেকে কাঠামোগত ডেটা সংগ্রহ করার জন্য অনেক সমস্যার সম্মুখিন হচ্ছে।

How to Take a Data-Driven Approach in Marketing.

আপনি নতুন শুরু করছেন বা আপনার বিদ্যমান মার্কেটিং কৌশলটি উন্নত করতে চাচ্ছেন তাহলে আপনাকে নির্দিষ্ট কিছু উপাদান রয়েছে যা বিবেচনা করতে হবে। এর মধ্যে রয়েছে:

  • Automate and Integrate: আপনার মার্কেটিং কৌশলটিতে নতুন টুলস এবং প্রযুক্তি ইন্ট্রিগেশন করার সময়ে, মাঝে মাঝে অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে হবে। এমন মার্কেটিং অটোমেশন কৌশল তৈরি করতে হবে যা আপনাকে নিজের মতন করে হবে যার ফলে আপনি আপনার লক্ষ্যে অটল থাকবেন এবং জটিল ফলাফল এড়াতে পারবেন।
  • Collaboration Across Teams: যেহেতু ডেটা এমন কিছু যা পুরো কোম্পানি জুড়ে পরিচালিত হওয়া দরকার। তাই মার্কেটারদের নিশ্চিত করতে হবে যেন সকল বিভাগ এবং এর মধ্যকার দলগুলির মধ্যে তথ্য ভাগ করা হচ্ছে ।
  • Monitor Industry Changes: কম্পিটিটরদের সব সময় এন্যালাইসিস করতে হবে যার ফলে তাদের ভুল থেকে আমরা শিক্ষা নিতে পারি। এই শিল্পের অন্যান্য ক্ষেত্রগুলির মতো, ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিংও ক্রমাগত পরিবর্তন হচ্ছে। সর্বশেষ ট্রেন্ডগুলিতে আপ টু ডেট থাকায় একমাত্র আপনাকে আপনার নিজস্ব ব্র্যান্ডের মার্কেটিং কৌশলটিকে সফল করতে সহায়তা করবে।
  • Continued Measurement: ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং সব সময় একরকম থাকে না। আপনি যে ফলাফল (সফলতা বা ব্যর্থতা) দেখছেন তার উপর ভিত্তি করে এটি নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা এবং সামঞ্জস্য করা উচিত।

Implementing a Data-Driven Marketing Strategy

মার্কেটিং বিশেষজ্ঞরা একটি সফল ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং কৌশল বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপগুলিতে মূলত একমত হন। নীচের সেই নেতাদের এবং মার্কেটিং বিশ্লেষকদের গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপগুলি উপস্থাপন করে।

  1. ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং কৌশল দিয়ে আপনি যে লক্ষ্যগুলি অর্জন করতে চান তা সনাক্ত করুন। অনেকে S.M.A.R.T.(Specific, Measurable/Measurement, Achievable, Relevant, Time-Oriented) ব্যবহার করার পরামর্শ দেন যেখানে আপনার লক্ষ্যগুলি হল: "সুনির্দিষ্ট - উপার্জন বৃদ্ধির পরিবর্তে একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য ব্যবহার করুন" "উপার্জনকে 12% বাড়িয়ে দিন" "পরিমাপযোগ্য - সেগুলি অবশ্যই অর্জনযোগ্য সংখ্যায় হ্রাস করতে হবে - লক্ষ্যগুলি অর্জনযোগ্য হতে হবে। অন্যথায়, তারা কোনও উদ্দেশ্য পুরণ করে না। প্রাসঙ্গিক - লক্ষ্যটি পূরণে অবশ্যই কোম্পানিকে কিছুটা উপকৃত হতে হবে - প্রতিটি লক্ষ্য পূরণের জন্য যুক্তিসঙ্গত সময়সীমা নির্ধারণ করুন।
  2. আপনি কোন ধরনের লক্ষ্য স্থাপন করতে চান তা সিদ্ধান্ত নিন। এগুলি নতুন গ্রাহকদের আকর্ষণ, আয়, লাভ, গ্রাহকের অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি এবং অন্যদের সংমিশ্রণের উল্লেখ করতে পারে।
  3. এমন একটি দল তৈরি করুন যাদের আপনার সংগ্রহ করা ডেটা বিশ্লেষণের জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা আছে। ক্রস-ডিসিপ্লিনারি দল তৈরির জন্য এটি বিভিন্ন বিভাগের লোকদের একত্রিত করবে উদাহরণস্বরূপ বিক্রয়, আইটি, মার্কেটিং এবং গ্রাহক পরিষেবা।
  4. ক্রেতা ব্যক্তিদের বিশদ বিবরণ তৈরি করুন যা আপনার টার্গেট দর্শকদের উপস্থাপন করে.
  5. আপনার কোন ডেটা দরকার তা স্থির করুন। প্রদত্ত প্রচারের লক্ষ্যগুলির উপর নির্ভর করে, আপনার টার্গেট দর্শকরা কোন ওয়েব পৃষ্ঠায় সময় কাটাচ্ছে, তাদের ব্রাউজিং ডেটা, সোশ্যাল মিডিয়া ডেটা, সিআরএম দ্বারা প্রাপ্ত ডেটা, জরিপের ফলাফল এবং আরও অনেক কিছু দেখতে হবে পারেন।
  6. আপনার কর্মপ্রবাহ স্বয়ংক্রিয় করুন। উপলব্ধ তথ্যের পরিমাণ বেশিরভাগ টীমের প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং অন্তর্দৃষ্টিপূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি অর্জনের ক্ষমতা ছাড়িয়ে গেছে। আপনি যে ধরণের ডেটা সংগ্রহ করেন তার সাথে কাজ করে এমন অটোমেশন সরঞ্জামগুলি বাছায় করুন।
  7. তৃতীয় পক্ষের ডেটা ব্রোকার বা অন্য উৎস থেকে আপনার ডেটা রিয়েল সময়ে আসুক বা না আসুক তা সংগ্রহ করুন।
  8. তারপরে, ডেটা বিশ্লেষণের জন্য আপনি নির্বাচিত অটোমেশন সরঞ্জামগুলি ব্যবহার করুন।
  9. সেই বিশ্লেষণ থেকে, আপনার প্রচার চালানোর জন্য আপনি যে চ্যানেলগুলি ব্যবহার করবেন তা বাছায় করুন। আপনি পিপিসি বিজ্ঞাপন, ইমেল মার্কেটিং, কন্টেন্ট মার্কেটিং বা আপনার প্রয়োজনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ যে কোনও পদ্ধতি বেছে নিতে পারেন।
  10. অবশেষে, আপনার প্রচার শুরু করুন। ফলাফলগুলি নিরীক্ষণ করুন, আপনার ROI গণনা করুন, তারপরে পরবর্তীতে প্রচার এর উন্নতি করতে আপনি যা শিখলেন তা ব্যবহার করুন।

Examples of Data-Driven Marketing

আপনি যদি এখনও নিশ্চিত না হন যে এই ধরণের মার্কেটিংটি কীভাবে আপনার ব্যবসায়িক কৌশলের সাথে খাপ খায় তা দেখুন, তবে এখানে কিছু ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর উদাহরণ রয়েছে যা কিছু অনুপ্রেরণা দেয়:

  • Retargeting: সমস্ত ডিজিটাল মার্কেটারদের জন্য রিটার্গেটিং গুরুত্বপূর্ণ। যদি কেউ এর আগে আপনার ই-কমার্স সাইট থেকে কোণ কিছু কিনে থাকে বা উল্লেখযোগ্য আগ্রহ দেখিয়ে থাকে তবে কেন আবার তাদের রিটার্গেটিং করবেন না? আসুন আমরা আপনার টার্গেট শ্রোতাদের একজন সদস্যকে ভ্রমন উৎসাহী যারা সম্প্রতি কক্স-বাজারে ট্যুর বুক করেছে। এই ডেটা থেকে, আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সমুদ্র ভ্রমন, থাকার ব্যবস্থা, বিমান ভাড়া এবং অনুরূপ ছুটির আইডিয়াগুলির জন্য প্রাসঙ্গিক চুক্তি সরবরাহ করতে পারেন যা সেই টার্গেটেড দর্শকদের কাছে আবেদন করে।
  • Dynamic Advertising: ফেসবুক, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম জুড়ে বিজ্ঞাপন তৈরি করতে আপনার সুবিধার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করুন। আপনার দর্শকদের কে সাইন আপ করার অনুমতি দিয়ে এবং কেবলমাত্র একটি ক্লিকের মাধ্যমে আরও তথ্য গ্রহণের মাধ্যমে সংযুক্ত করুন। আপনার সোশ্যাল মিডিয়া আউটলেটগুলিকে দ্বি-মুখী যোগাযোগের চ্যানেলে পরিণত করার মাধ্যমে আপনি এখন মূল্যবান তথ্য পেয়েছেন যা সরাসরি আপনার ডেটাবেইজে ফিড করে।
  • Optimized Paid Search: আপনার পছন্দের গ্রাহকরা কী কীওয়ার্ডগুলি অনুসন্ধান করেন তার উপর ভিত্তি করে বিশ্লেষণ করুন এবং প্রতিযোগিতাটিতে কী লক্ষ্যবস্তু করছে তা বিবেচনা করুন। নিজেকে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক অনুসন্ধান ফলাফলের শীর্ষে রাখার জন্য এই ডেটাটিকে উৎসাহিত করুন এবং আপনার ওয়েবসাইটে মূল্যবান ট্র্যাফিক চালনা করুন।
  • Targeted Email Campaigns: ইমেল মার্কেটিং আপনার বিদ্যমান কৌশল গুলির একটি অংশ? আপনার কাঙ্ক্ষিত টার্গেট ক্রেতাদের একসাথে দলবদ্ধ করে ইমেল প্রচারের একটি ডেটা ড্রিভেন পদ্ধতি গ্রহণ করুন। এই ডেটাটি অটোমেশনের অনুমতি দেবে, আপনি প্রতিটি গ্রাহকের সাথে এক থেকে এক সংযোগ তৈরি করতে বার্তাগুলি সহজেই নিজে ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন।

এই নতুন দশকে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং আরও উন্নত করতে ইচ্ছুক এমন মার্কেটাররা তদন্তের জন্য বেশ কয়েকটি ট্রেন্ড খুঁজে পাবেন।

  • এর মধ্যে প্রধান হ'ল বহু শিল্প এবং ব্যবহারের ক্ষেত্রে জুড়ে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা(AI) এবং মেশিন লার্নিংয়ের(ML) ক্রমবর্ধমান প্রভাব। তারা  ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর সাথে সম্পর্কিত হিসাবে, এই প্রযুক্তিগুলি বুদ্ধিমান চ্যাটবটগুলির কোম্পানি গুলিকে ভবিষ্যদ্বাণীমূলক বিশ্লেষণ থেকে আরও মূল্য পেতে এবং গ্রাহকদের সাথে আরও দক্ষতার সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম করে।
  • ভবিষ্যদ্বাণীমূলক বিশ্লেষণগুলি, ফরেস্টার রিপোর্ট অনুসারে, মার্কেটারদের তিনটি উপায়ে সহায়তা করে। এটা হতে পারে …
  • সম্ভাবনা, সন্দেহভাজন এবং অ্যাকাউন্ট গ্রহণের তাদের সম্ভাবনা সম্পর্কিত বিষয়গুলিকে অগ্রাধিকার দিন।
  • বিদ্যমান গ্রাহকদের অনুরূপ সম্ভাবনাগুলি সনাক্ত এবং অর্জনে সহায়তা করুন।
  • সম্ভাবনা এবং গ্রাহকদের আরও ব্যক্তিগতকৃত বার্তা সরবরাহ করুন।
  • প্রথম পক্ষের ডেটা - যা দালালদের কাছ থেকে ক্রয়কৃত ডেটার পরিবর্তে কোম্পানি কর্তৃক উৎপাদিত -  ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর শীর্ষে চলছে। যখন গ্রাহকরা কোনও প্রদত্ত কোম্পানির সাথে ইন্টারঅ্যাক্ট করে, তারা যে ডেটা উৎপন্ন করে সেগুলি সরাসরি প্রমাণ দেয় যা তৃতীয় পক্ষের ডেটার চেয়ে বেশি প্রাসঙ্গিকতার সাথে পছন্দগুলি, আচরণ এবং অনুপ্রেরণাগুলি প্রকাশ করতে পারে।
  • কোম্পানিগুলি স্বীকৃতি দিচ্ছে যে মার্কেটিং দলকে পৃথককারী প্রাচীর, এমন একটি মিডিয়া তৈরি করেছে যা একটি প্রচারকে শক্তি দেয় এবং ডেটা বিশ্লেষক এবং ডেটা বিজ্ঞানীরা অবশ্যই নামতে হবে। এক সাথে কাজ করা সম্মিলিত দলকে তাদের বিভিন্ন ধরণের ক্রিয়াকলাপ বোঝার প্রয়োজনীয় সংস্থান দেয় - একটি ক্লিক, চ্যাট শুরু করা, পিডিএফ ডাউনলোড করা - গ্রাহক ভ্রমণের সাথে সম্পর্কিত। সহযোগিতার ফলাফল গ্রাহকদের সাথে আরও সম্পূর্ণরূপে অবহিত সম্পর্কের ক্ষেত্রে

আপনি যদি ইউজার হয়ে থাকেন!

আপনি বর্তমানে যেই ওয়েবসাইটেই যান না কেন, দেখবেন তাদের কুকি এবং প্রাইভেসি পলিসি মেনেই আপনাকে সেই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে হচ্ছে। এখন আপনি যদি সেই পলিসি বিস্তারিত পড়ে দেখেন তাহলে বুঝবেন, আপনার প্রাইভেসি বলতে আদতে কোন কিছুই নেই। আপনি কি করছেন, কি খাচ্ছেন কোথায় যাচ্ছেন সবকিছুর ডেটাই গুগোল কিংবা ফেসবুকের কাছে রয়েছে।

আপনি কেমন মানুষ, একজন ভোক্তা হিসেবে আপনি কেমন আচরণ করছেন সেটাও এই সব জায়ান্টদের কাছে সংরক্ষিত হতে থাকে। আর বিভিন্ন ধরণের বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের সময় আপনার এই ব্যক্তিগত তথ্যগুলোকে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

পরিশেষে এটা বলা যায় যে, বর্তমানে ইউজার হিসেবেও ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর উপর আমাদের নির্ভরশীল হওয়াটাই ভালো। কেননা এর মাধ্যমে আমাদের কাছে অপ্রাসঙ্গিক বিজ্ঞাপনগুলো দেখা লাগছে না বরং আমাদের প্রয়োজনীয় এবং নিজেদের কাছে আকর্ষণীয় এমন বিজ্ঞাপনগুলোই আমরা দেখছি।

আর বিজ্ঞাপন দাতা হিসেবে ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং থেকেই যেহেতু বেশি লাভবান হচ্ছি তাই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং এর ভাণ্ডারে জমা পড়ছে আমাদের সকল আকর্ষণ। প্রতিনিয়তই বিভিন্ন গবেষণা চলছে এবং এই ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং দিন দিন আরো অনেক বেশি কার্যকর ভূমিকা রাখছে।

উপসংহার

মূলত, ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং 25 বছর আগে ডোন মরিচ এবং মার্থা রজার্স প্রথম লিখেছিলেন; তাদের ততকালীন প্রকাশিত "এক-এক" মার্কেটিং দর্শন এর মধ্যে। ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং ব্যবহার করে প্রতিটি সম্ভাবনা এবং গ্রাহকের দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ করে একের পর এক ধারণাটিকে নতুন উচ্চতায় উন্নীত করছে। এজন্য ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং দর্শন কে প্রযুক্তি এগিয়ে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল। ডিমান্ডজ্যাম্পের মতো ডেটার বিভিন্ন উৎসগুলিকে একত্রিত ও বিশ্লেষণের জন্য AI ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে, আপনি আশা করতে পারেন ডেটা ড্রিভেন মার্কেটিং সমস্ত শিল্প জুড়েই আদর্শ হয়ে উঠবে।



এটা Digital Marketing Nano Camp একটা পার্ট। এখানে থিওরি বলা হয়েছে, Digital Marketing Nano Camp এ রিয়েল লাইফ প্রোজেক্টের মাধ্যমে কাজ করে দেখানো হবে।
আমাদের Nano Camp গুলি দেখতে নিচের লিংকে ক্লিক করুনঃ  Stack Learner Nano Camp